আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের সংগঠন সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে – লক্ষী পদ দাশ


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ২৪/০৫/২০২৪, ৯:৪০ PM / ১৯
আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের সংগঠন সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে – লক্ষী পদ দাশ

জয়বাংলা নিউজ ডেস্ক। 

বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা কে জড়িয়ে সাম্প্রতিক আলোচিত পাহাড়ি বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন কেএনএফ এর সাথে সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান কাজী মোঃ মজিবর রহমান এর বক্তব্যের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ।

বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল

শুক্রবার (২৪ মে) সকাল ১০ টায় জেলার ঐতিহাসিক রাজার মাঠ হতে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষী পদ দাশ এর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক গুলো প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে এসে শেষ হয়।

এসময় বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে জেলা আওয়ামীলীগ, শ্রমিকলীগ, যুবলীগ,ছাত্রলীগ,পৌর আওয়ামীলীগ সহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।


মিছিল পরবর্তী সমাবেশে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ বলেন ক্য শৈ হ্লা বান্দরবান জেলা পরিষদের চার বারের সফল চেয়ারম্যান,বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশনের দুই বারের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এবং বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সম্পর্কে ভূঁইফোড় সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের নেতা কাজী মজিবর রহমান সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যাচার বানোয়াট ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদান কোন ভাবেই কাম্য নয়।


বক্তারা বলেন উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের শীর্ষ স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে এ ধরনের বক্তব্য সম্প্রতির বান্দরবানে অরাজকতা,বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পায়তারা।সমাবেশে বক্তারা,পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মো. মজিবর রহমান এর বক্তব্যর তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং আওয়ামী লীগের মত একটি সংগঠন ও এর সভাপতি, সাধারণ সম্পাদককে জড়িয়ে মিথ্যা ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদানের তীব্র প্রতিবাদ জানান।


বক্তব্য প্রদান কালে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ বলেন আওয়ামীলীগ মুক্তিযুদ্ধের সংগঠন, সকল ধরনের ষড়যন্ত্রের মোকাবেলা করা হবে।
তিনি বলেন কাজি মজিবুর একসময় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলো তার কুচক্রী মনোভাবের কারনে তিনি বহিষ্কৃত হয়েছেন।বহিষ্কার হয়েও তার ষড়যন্ত্র থামেনি একে একে বিভিন্ন সময় জেলার উন্নয়ন ও সম্প্রিতি কে বাধাগ্রস্ত করার জন্য সাধারণ মানুষের মনে মিথ্যা বানোয়াট তথ্য ছড়িয়েছেন।লক্ষী পদ দাশ আরো বলেন এই পার্বত্য জনপদে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ রাজনৈতিক মাঠে বিএনপি, জামাত,জাতীয় পার্টি ছাড়াও আঞ্চলিক অনেক গুলো সংগঠনের সাথে টেক্কা দিয়ে টিকে আছে।

সম্প্রিতির বান্দরবানে বীর বাহাদুর উশৈসিং এর নেতৃত্বে বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ একটি সুসংগঠিত শক্তিশালী জনমানুষের দল।এই দলের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার আর অপপ্রচার করলে জনগন বান্দরবানের মাটি থেকে এই মিথ্যেবাদিকে বিতাড়িত করবে।

এসময় তিনি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বান্দরবানের ৭ উপজেলায় বিক্ষোভ ও সমাবেশ, এক মাসের মধ্যে তিন পার্বত্য জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে সমন্বিত সভা এবং দুই মাসের মধ্যে আওয়ামীলীগের সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাৎ করে পার্বত্য এলাকার বাস্তব চিত্র উপস্থাপন করার কর্মসূচী ঘোষনা করেন।

প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশে জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো.শফিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বাহাদুর, ক্য সা প্রু মারমা, পৌর মেয়র সামসুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক অজিত কান্তি দাশ, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি অমল কান্তি দাশ সহ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে বান্দরবান সদরের একটি রেস্টুরেন্টে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলনে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মো. মজিবর রহমান সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিনের নৈরাজ্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং যৌথবাহিনীর অভিযান আরও জোরালো করা সহ সেনা ক্যাম্প বৃদ্ধির জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে কাজি মজিবুর রহমান বক্তব্য প্রদান কালে কেএনএফ এর আশ্রয় প্রশ্রয় ও শক্তি বৃদ্ধির জন্য জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শান্তি প্রতিষ্ঠা কমিটির চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা কে দায়ি করেন এবং সম্প্রতি উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রভাব বিস্তারের জন্য জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে দায়ি করে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে কাজি মজিবুর রহমানের দেয়া বক্তব্যের ধারাবাহিকতায় আজ বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।