কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  চেয়ারম্যান পদে ত্রিমুখী এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে দ্বিমুখী লড়াইয়ের আভাস


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ০৫/০৫/২০২৪, ৭:৩৫ PM / ৩৩
কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  চেয়ারম্যান পদে ত্রিমুখী এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে দ্বিমুখী লড়াইয়ের আভাস

ঝুলন দত্ত, কাপ্তাই( রাঙামাটি) প্রতিনিধি:

 

আগামী ২১ মে রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। গত ২ মে রাঙামাটি জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে  প্রতীক বরাদ্দের পর প্রার্থীরা গণসংযোগে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। গতকাল শনিবার সকাল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত  কাপ্তাই উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে বাজার, রাস্তাঘাট এবং অলিগলি। চায়ের দোকান কিংবা পাড়ার অলিতে-গলিতে এখন আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু কে হবেন কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ এর পরবর্তী চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান। এসময় ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, চেয়ারম্যান পদে আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, মো: নাছির উদ্দিন ও সু্ব্রত বিকাশ তনচংগ্যার মধ্যে  ত্রিমুখী লড়াই হবে। এছাড়া  ভাইস চেয়ারম্যান পদে আব্দুল হাই খোকন  ও সুইপ্রু মারমার মধ্যে এবং  মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফারহানা আহমেদ পপি এবং বিউটি হোসেন এর মধ্যে   দ্বিমুখী লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান অপর প্রার্থী হলেন চাষী কামাল।

রাইখালী ইউনিয়ন এর রাইখালী বাজারের বাসিন্দা স্বপন দে, ভালুকিয়ার অজিত তনচংগ্যা, লেমুছড়ি পাড়ার মংচিং মারমা, কেপিএম এলাকার মো: ইদ্রিচ, সাফিয়া খাতুন সহ অনেক  ভোটারের সাথে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তাঁরা সকলেই বলেন, একজন সৎ, যোগ্য এবং সবসময় জনগনের পাশে থাকবেন এমন প্রার্থীকে আমরা বেঁচে নিব।

কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আনারস প্রতীক নিয়ে অংশ নেওয়া কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান  আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী( বেবী) তাঁর জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ নিয়ে বলেন, সেই ছোট বেলা হতে আমি ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত। একবার চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব পালন করেছি। আমি সবসময় জনগণ হতে বিচ্ছিন্ন হই নাই।  আমি যদি জয়ী হই, তাহলে সরকারের চলমান উন্নয়নের ধারা প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌঁছে দিব। একটি স্মার্ট, আধুনিক, মডেল উপজেলা হিসাবে কাপ্তাই উপজেলাকে গড়ে তুলবো।

দোয়াত কলম প্রতীক নিয়ে উপজেলা পরিষদ এর চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ এর বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো: নাছির উদ্দিন। তিনি বলেন, আমি উপজেলা পরিষদ এর ভাইস চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সবসময় জনগণের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। করোনা মহামারী সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দূর্যোগে, নানা সামাজিক অনুষ্ঠানে সবসময় মানুষের পাশে থেকেছি। আশা করি জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন। আমি যদি জয়ী হই, তাহলে কাপ্তাই উপজেলাকে একটি পর্যটন বান্ধব উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলবো। পাশাপাশি প্রত্যেকটা পাড়ায় পাড়ায় সরকারের উন্নয়নকে জনগণের দৌঁড়গোঁড়ায় পৌঁছে দিব।

ঘোড়া প্রতীক নিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে অংশ নেওয়া  সুব্রত বিকাশ তনচংগ্যা বলেন, একবার কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ এর ভাইস চেয়ারম্যান পদে আমি দায়িত্ব পালন করেছি। ক্ষমতার সীমাবদ্ধতা থাকার পরও আমি সেই সময় উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে ছুটে গিয়েছি, জনগণের উপকার করার চেষ্টা করেছি এবং সরকারের উন্নয়ন এর অংশীদার হয়েছি। বিগত বছরগুলোতেও ক্ষমতায় না থাকলেও সবসময় আমি জনগণের পাশে থেকেছি। আশা করছি সর্বস্থরের জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন। আমি যদি জয়যুক্ত হই, তাহলে কাপ্তাই উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে উন্নয়ন এর যে ধারা অব্যাহত আছে সেই ধারা আরোও গতিশীল লাভ করবে।

কাপ্তাই ভাইস-চেয়ারম্যান পদে টিউবওয়েল
প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক   আব্দুল হাই খোকন বলেন,  আমি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। প্রচার প্রচারনায় যেখানে যাচ্ছি যেখানে পাহাড়ি বাঙালি সর্বস্থরের জনগণ আমাকে সমর্থন দিচ্ছেন। আমি যদি ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয়ী হই তাহলে  একটি পরিচ্ছন্ন, মাদকমুক্ত, স্মার্ট কাপ্তাই  উপজেলা গঠনে উপজেলা পরিষদকে সহায়তা করে যাবো।

টিয়া পাখি প্রতীক নিয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী কাপ্তাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য   সুইপ্রু মারমা বলেন, আমি একবার কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারের দায়িত্ব পালন করেছি। সেই সময় উন্নয়ন কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম। তাই উন্নয়ন এর এই কর্মকান্ডকে উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নে ছড়িয়ে দিতে আমি ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছি। প্রচার প্রচারনায় যেখানে যাচ্ছি যেখানে সকল শ্রেনীর মানুষের ভালোবাসা এবং প্রতিশ্রুতি পাচ্ছি। জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করবেন বলে আমার বিশ্বাস। আমি নির্বাচিত হলে উন্নয়ন কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃক্ত করবো।

ফুটবল প্রতীক নিয়ে অংশগ্রহনকারী   কাপ্তাই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী  এবং  বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কাপ্তাই উপজেলা শাখার  মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ফারহানা আহমেদ পপি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে তরুণ তরুণীদের নিয়ে কাজ করবো, তাদের ভালোমন্দ সমস্যা নিয়ে জানতে চাইবো এবং সমাধানের উদ্যোশে কাজ করবো। আমি যেখানে নির্বাচনি প্রচারনায় যাচ্ছি সেখানে প্রচুর সাড়া পাচ্ছি।

কলস প্রতীক নিয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রাঙামাটি জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক  বিউটি হোসেনও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, প্রচার প্রচারনায় যেখানে যাচ্ছি যেখানে জনগণের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তানিয়া আক্তার বলেন, ৬ষ্ট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কাপ্তাই উপজেলায় ২৪ টি কেন্দ্রে ়ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। সর্বমোট ৪৯ হাজার ৫ শত ২৮ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

ছবির ক্যাপশন: চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের ছবি।
বাম থেকে কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী  আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, মোঃ নাছির উদ্দিন এবং সুব্রত বিকাশ তনচংগ্যা।

ভাইস-চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী  আব্দুল হাই খোকন, সুইপ্রু মারমা, মোঃ কামাল উদ্দিন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী  ফারহানা আহমেদ পপি এবং বিউটি হোসেন।