গর্জনিয়া ইয়াবা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দোকানে ঝগড়া করতে নিষেধ করায় সভাপতির উপর হামলা।


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ১৫/১০/২০২২, ৭:৩৪ PM / ১৪
গর্জনিয়া ইয়াবা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দোকানে ঝগড়া করতে নিষেধ করায় সভাপতির উপর হামলা।

আবদুর রশিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি।

কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড শাহ মুহাম্মদ পাড়া ফারুকের চায়ের দোকানে ইয়াবা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ঝগড়া করতে নিষেধ করায় শাহ মুহাম্মদ পাড়া আদর্শ নূরানী মাদ্রাসা ও তবারকিয়া হাফেজ খানা ও এতিম খানার সভাপতির উপর হামলা করেছে সন্ত্রাসীরা।

১৪ অক্টোবর শুক্রবার রাত ৮ টায় শাহ মুহাম্মদ পাড়া ফারুকের চায়ের দোকানে ইয়াবা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ঝগড়া চলছিল তখন মাদ্রাসা সভাপতি মোঃ ইদ্রিস দোকানে ঝগড়া করতে নিষেধ করায় উত্তেজিত হয়ে চিহ্নিত সন্ত্রাসী এলাকার ফরিদুল আলমের পুত্র মামুন, মমতাজের পুত্র নুরুল আমিনসহ অন্যান্য সন্ত্রাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে লোহার রড,ও লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে শাহ মুহাম্মদ পাড়া আদর্শ নূরানী মাদ্রাসা ও হাফেজ খানা ও এতিম খানার সভাপতি মোঃ ইদ্রিস (৪৬) কে রক্তাক্ত জখম ও হাত ভেংগে দেয়।

সাথে সাথে মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটি সদস্য ও শিক্ষক গন তাহাকে দ্রুত উদ্ধার করে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অবস্থা অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাহাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরন করেন।
এ নিয়ে এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে এলাকাবাসি দাবি করে বলেন দ্রুত চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করা না হলে মানববন্ধন সহ কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবেন।

এবিষয়ে ইউপি সদস্য মোঃ জুবায়েরের মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান ঘটনা টি শুনেছেন কিছু উশৃংখল রোহিঙ্গা যুবক মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ ইদ্রিসের উপর হামলা করতেছেন তাহা অত্যন্ত দুঃখজনক তিনি সুস্থ বিচার দাবি করেন।

এবিষয়ে রামু থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মুহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান সে ব্যয়পারে এখনো কেউ অভিযোগ করেননি যদি অভিযোগ করে আইনগতভাবে ব্যবস্তা নেওয়া হবে।

 

 

 

নিজস্ব জাতিসত্বার সংস্কৃতি,ঐতিহ্য, লালন পালন, চর্চা ও ধারণ করা উচিৎ-মংনুচিং।