নাইক্ষ্যংছড়ি ৭ বিষয়ে ২২ কর্মদিবসে ৭ কর্মশালা সম্পন্ন।


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ২৭/০৯/২০২২, ৭:৫০ PM / ১০
নাইক্ষ্যংছড়ি ৭ বিষয়ে ২২ কর্মদিবসে ৭ কর্মশালা সম্পন্ন।

আব্দুর রশিদ,নাইক্ষ্যংছড়ি।

উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্প (ইউজিডিপি), স্থানীয় সরকার বিভাগ এর আওয়তায় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন, সন্ত্রাস নির্মুল,বাল্য বিয়েসহ ০৭ বিষয়ে ২২ কর্মদিবসে ৭ কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে। যার উপকার ভোগীর সংখ্যা দাড়াঁয় ২ হাজারের অধিক।

সোমবার(২৬ সেপ্টেম্বর’’২০২২) বিকেলে এ কর্মশালা শেষ হয় । আর শুরু হয়েছিলো ১৬ আগষ্ট’’২০২২। কর্মশালা গুলো অনুষ্ঠিত হয় উপজেলা সদরের বিভিন্ন প্রতিষ্টান কেন্দ্রিক মিলনায়তনে।শেষ দিনের এ কর্মশালা অনুষ্টিত হয় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের অস্থায়ী মিলনায়তনে। কর্মশালা সমূহে মাদকের ব্যবহার,কুফল,প্রতিরোধ,কিশোর গ্যাং,সন্ত্রাস সৃষ্টি-দমন-উপায়-করণীয়,সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয়-ঊত্তোরণের উপায় সমূহ নিয়ে।বাল্য বিবাহ,বাড়ির আঙ্গিনায় বানিজ্যক ভিত্তিতে সবজি চাষ, হাস-মুরগী ও গরু-ছাগল দের টিকা প্রদান বিষয়ে খামারীদের দক্ষতা বৃদ্ধি।

সামাজিক সহায়তাদান ও সমাজে শৃংখলা বিষয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়। এছাড়া পরিবার পরিকল্পনা ,সমাজ সেবা মূলক কর্মকান্ড,মহিলা সংক্রান্ত,শিক্ষা বিষয়ক,প্রাণী সম্পদ বিভাগের এর সেবা মূলক সব বিষয়ে বক্তব্যের পর মতামত সংগ্রহ করা হয় প্রশিক্ষনাথীর্দের ।

যে সব আলোচনাতে অংশ নেয়া ৭ বিষয়ে অংশ নেন ৪১০ জন নানা পেশার ও শ্রেণির লোক জন,অংশগ্রহনকারী সকলে উক্ত প্রশিক্ষণে সন্তুোষ প্রকাশ করেন।আর পরোক্ষভাবে উপকৃত হন ২৫০০ জন উপকারভোগী।

এ প্রশিক্ষণ কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক মোহাম্মদ শফিউল্লাহ , চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ ও প্রধান আলোচক ছিলেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা ফেরদৌস এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা এ বৈষয়িক অভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ।

এ বিষয়ে,নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালমা ফেরদৌস বলেন, এই প্রকল্পের মাধ্যমে পিছিয়ে পড়া উপজেলাকে অনেক দূর এগিয়ে যাবে। মানুষ সচেতন হবে।জনাব সুমন আলী,ইউডিএফ, বলেন যে,নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার কর্মশালা সমূহে অংশ নেয়া সকলের অর্জিত জ্ঞান তারা প্রয়োগ করেন তাদের লিখিত মতামতে। এতে সমাজের বাস্তব চিত্র উঠে আসে,যাতে প্রতিকারের উপায় নিয়েও মতামত উপস্থাপিত হয়।

 

 

 

লামায় কর্মরত সাংবাদিকদের মানববন্ধন।