বম সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী নবান্ন উৎসব ফাথার বুহ্ তেম অনুষ্ঠিত


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ২৮/১১/২০২১, ৯:০৯ AM / ১৩
বম সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী নবান্ন উৎসব ফাথার বুহ্ তেম অনুষ্ঠিত

মোঃ শহীদুল ইসলাম রানা বান্দরবান সংবাদ দাতা:

বান্দরবানে বম সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী নবান্ন উৎসব ফাথার বুহ্ তেম ও লোকসাংস্কৃতিক উৎসব ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৭নভেম্বর শনিবার বান্দরবান সদর উপজেলা সুয়ালক ইউনিয়ন বেথানী পাড়ায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পাবর্ত্য জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি ।

অনুষ্ঠান শুরুতে উৎসব উপলক্ষে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়।পরে বমদের রকমারি তৈরি পিঠা ও জুমের কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি পরিদর্শন করেন অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা।

বমদের ঐতিহ্য জুম চাষের সরঞ্জামাদি সংস্কৃতি পাহাড়ের নানান রকমারি জুমের উদপাদিত নতুন ফলমূল সবজি এবং বিভিন্ন ধরনে তৈরি পিঠা কলা পাতায় মোড়ানো  পিঠা, কোয়েল পিঠা, বাঁশের চোঙায় পিঠা, কলার পিঠা, তেলে ভাজা পিঠাসহ প্রায় ৩০ ধরনের খাবার প্রদর্শনীতে প্রদর্শন করা হয়।

এসময় অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ সদস্য সিয়ং খুমী সভাপতিত্বে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবরিনা আফরিন মুস্তাফা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট উপ-পরিচালক মংনুচিং, রেড ক্রিসেন্ট সদস্য গাবলিয়ান ত্রিপুরা ও এলাকার গ্রাম প্রধানসহ গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গরা উপস্থিত  ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, সেই ঐতিহ্যগুলো ধরে রাখতে হলে আমাদের নিজেরদের সংস্কৃতিকে আগলে রাখতে হবে। সংস্কৃতি কখনো অন্য সংস্কৃতির সঙ্গে বদল করা যায় না। নিজের সংস্কৃতি নিজেদের কাছে বড়। তাই নিজেদের সংস্কৃতিকে নিজেদের শক্ত করে ধরে রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, জুমের বিভিন্ন ফলমূল,সবজি এবং পাহাড়ি ফসল দিয়ে তৈরি বিভিন্ন ধরনের পিঠা সেটি বম ভাষা মাধ্যমে লেখাগুলো উপস্থাপন করার কারণে যে কেউ সহজে বুঝতে পারে পাশাপাশি এটি একটি ঐতিহ্যগুলো ধরে রাখা ভালো উদ্যোগ।

তাছাড়া বান্দরবান শহর যেহেতু পর্যটন নগরী তাই জেলা প্রসাশন থেকে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের তাদের ঐতিহ্যগুলো ধরে রাখতে একটি জাদু ঘর নির্মাণ করার পরিকল্পনা আছে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

অনুষ্ঠান শেষে  নৃত্য, অভিনয় ও নাটকের মধ্য দিয়ে বমদের জীবনযাপন বৈচিত্রময় ঐতিহ্য সংস্কৃতি তুলে ধরা হয় আগত অতিথিদের সামনে।