বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন নিয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ৩০/০৫/২০২৪, ৮:৪১ PM / ১০
বান্দরবানের তিন উপজেলায় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন নিয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা

নিউজ ডেস্ক।

 

বান্দরবানে আগামী ১লা জুন ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন পরিচালনা করা হবে।এসময় জেলায় ৭ টি উপজেলার ৭৬ হাজার ১ শত ১ জন শিশুকে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।
তবে সাম্প্রতিক পাহাড়ি সশস্ত্রী সংগঠন কুকিচিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) এর তৎপরতা রয়েছে রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি সহ তিনটি উপজেলাতে এবং এসব এলাকায় যৌথ বাহিনীর অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।এসব এলাকায় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন কর্মসূচি থেকে এবার অনেক শিশু বাদ পরবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

অপুষ্টি জনিত অন্ধত্ব নির্মূল এবং অপুষ্টিজনিত মৃত্যু প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পইন ২০২৪ উপলক্ষে বাদরবানে সাংবাদিকদের নিয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান বান্দরবান জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মাহবুবুর রহমান।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) সকালে জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান, জাতীয় পুষ্টি সভার বাস্তবায়নে ও স্বাস্থ্য বিভাগ বান্দরবানের আয়োজনে বাদরবান সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সেমিনার কক্ষে এই ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্টিত হয়।

এসময় কর্মশালায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পইন সর্ম্পকে সাংবাদিকদের বিভিন্ন বিষয়ে অবহিত করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা: মোঃ মাহবুবুর রহমান।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য ও শিক্ষা কর্মকর্তা সাসুই চিং, জেলা স্বাস্থ্য তত্বাবধায়ক অশিষ কুমার বড়ুয়া, প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হকসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলন।

সভায় সিভিল সার্জন জানান, আগামী ১লা জুন বান্দরবান ৭৬ হাজার ১শত ১জন শিশুকে ভিটামিন “এ” ক্যাম্পেইনের আওতায় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

এসময় সিভিল সার্জন আরো জানান, এবার বাদরবান জেলায় ৬-১১ মাস বয়সী ১০হাজার ৩৮০জন শিশুকে ১টি করে নীল রংয়ের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল ও ১২-৫৯ মাস বয়সী ৬৫ হাজার ৭শত ২১জন শিশুকে ১টি করে লাল রংয়ের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। তিনি বলেন, ভিটামিন এ শুধুমাত্র অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ত থেকে শিশুদের রক্ষা করে তাই নয়, ভিটামিন এ শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, ডায়রিয়ায় ব্যাপ্তিকাল ও জটিলতা কমায় এবং শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়।