বিলাইছড়িতে মামলার এজাহারভূক্ত আসামী গ্রেফতার।


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ০৪/০৯/২০২২, ৬:২৪ PM / ১৫
বিলাইছড়িতে মামলার এজাহারভূক্ত আসামী গ্রেফতার।

সুজন কুমার তঞ্চঙ্গ্যা,বিলাইছড়ি ( রাঙ্গামাটি) প্রতিনিধিঃ

বিলাইছড়িতে জি- আর মামলার এজাহার নামীয় ১ জন আসামীকেব গ্রেফতার করেছে বিলাইছড়ি থানা পুলিশ।

রবিবার ( ০৪ সেপ্টেম্বর)থানা সূত্রে জানা যায়, বিকাল ০৩ঃ০০ ঘটিকায় সময় অফিসার ইনচার্জ বিলাইছড়ি থানার সার্বিক দিক নির্দেশনায় অএ থানার এসআই (নিঃ) ফাওার মিয়া এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ একটি টীম অভিযান পরিচালনা কালে রাঙ্গামাটি সদর এবং কাপ্তাই থানা এলাকার সীমান্তবর্তী জীবতলী নামক জায়গা থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় উল্লেখিত এজাহার নামীয় ১জন আসামী স্থানীয় জনসাধারণের সার্বিক সহযোগীতায় বিলাইছড়ি থানা পুলিশ কতৃক গ্রেফতার হয়,সত্যতা নিশ্চিত করেছেন থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলমগীর। যাহা বিলাইছড়ি থানার মামলা নং-০১,তাং ০১/০৯/২০২২ ইং ধারাঃ-৩০২ পেনাল কোড ১৮৬০।

এজাহার নামীয় ০১ জন আসামীর নাম নামঃ শান্তি জীবন চাকমা (২৯)পিতাঃ মৃত বিজিন্দ্র চাকমা,মাতাঃ ফুলেশ্বরী চাকমা,সাং- ২ নং কেংড়াছড়ি ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের বাঙ্গালকাটা এলাকার বাসিন্দা।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিলাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ এম,সি করানোর পর বর্তমানে বিলাইছড়ি থানা পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। আসামীকে আগামীকাল সকাল ০৭ঃ৩০ ঘটিকায় রাঙ্গামাটি জেলা বিজ্ঞ আদালতের উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় পুলিশ স্কট সহ প্রেরণ করা হবে বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার ৩০ জুন নিজ এলাকায় ইলিনা চাকমা নির্মম ভাবে খুন হয়। পিতা -মৃত- যুধিষ্ঠির চাকমা, মাতা-নন্দারানী চাকমা, গ্রাম- পরিহলা মৌন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শান্তি জীবন চাকমার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে, এক পর্যায়ে দুজনেই পালিয়ে যায়, পরে পাড়াবাসী জানতে পেরে ইলিনার বয়স ১৭ হওয়ায় আংটি পরিয়ে নিজ বাড়িতে তাকে রাখা হয়।

আসামী শান্তি জীবন তাকে প্রায় সময় সন্দেহ করে ,ঐ দিন মহিলাটি নিজ এলাকায় গরু চড়াতে গেলে পরে ফিরে না আসায় অনেক খোজাখুজি পর নির্জন জঙ্গলে ইলিনাকে মৃত্যু অবস্থায় দেখে। পরে মোরব্বীদের ও থানায় জানানো হলে আসামী আত্নগোপনে থাকে এবং দীর্ঘ ৬ দিন পর পুলিশের বিশেষ অভিযানে হাতে- নাতে ধরা পড়ে উক্ত আসামী।

 

 

 

বান্দরবানে অন্ধ কল্যাণ সমিতি গঠন।