রাঙামাটি আসবাবপত্র সমিতির সাঃ সম্পাদক মহিউদ্দিন পেয়ারুর বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ০৫/০৬/২০২১, ৯:৩৯ PM / ১২
রাঙামাটি আসবাবপত্র সমিতির সাঃ সম্পাদক মহিউদ্দিন পেয়ারুর বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

গত শুক্রবার (০৪জুন) রাঙামাটির একটি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন নিউজ পোর্টালে ‘‘আদালত বসিয়ে রাঙামাটিতে ফার্নিচার দোকানের নগদ টাকাসহ ১৩লাখ টাকার মালামাল লুটপাট!’’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করেছেন, রাঙামাটি আসবাবপত্র ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমিতি লিমিটেডর সাধারণ সম্পাদক মো: মহিউদ্দিন পেয়ারু।

আজ শনিবার (৫জুন) বিকালে গণমাধ্যমে রাঙামাটি আসবাবপত্র ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমিতি লিমিটেডের সাধারণ সম্পাদক মো: মহিউদ্দিন পেয়ারুর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করেন।

প্রেরিত এক প্রতিবাদ লিপিতে তিনি বলেছেন, আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রচার করা কিংবা প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। কোন ঘটনায় আমি একজন নাগরিক হিসেবে কোন সমস্যার সমাধানে আদালত বসিয়ে রায় কার্যকর কারার কোন ক্ষমতা আমার নেই। আমি আদালত বসিয়ে রাঙামাটিতে ফার্নিচার দোকানের নগদ অর্থসহ ১৩লক্ষ টাকার মালামাল লুট করেছি মর্মে সংবাদটি বানোয়াট ও ঢাহা মিথ্যা কথা। আমি উক্ত প্রকাশিত নিউজের তীব্র-নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

‘‘প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে, গত (২জুন) আমাদরে রাঙামাটি আসবাবপত্র ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডর সমিতির সম্মানিত সদস্য মো: ইউছুফ (পিতা: মো: আবুল কালাম, সাং: শান্তিনগর, ফিসারিঘাট এলাকা) এর সাথে আমার ব্যবসায়ী সংক্রান্ত অনাকাঙ্খিত ঘটনার কারণে ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়। উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাঙামাটি আসবাবপত্র ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডর সদস্যদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে আইন -শৃঙ্খলার অবনতি ও দোকান ভাংচুরের মত অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আশংঙ্খা দেখা দিলে গত বৃহস্পতিবার (৩জুন) সমিতির কার্য্যকরি পরিষদের জরুরী সভার আহব্বান করা হয়। সভায় সদস্যদের সিদ্ধান্তনুযায়ী মো: ইউছুপের দোকানের সমস্ত মালামাল সমিতি ভবনের ৪র্থ তলায় এনে নিরাপদে সমিতির নিজস্ব ভবনে হেফাজতে রাখার সিদ্ধান্ত হয় বিধায় সমিতির কার্য্যকরি পরিষদ ও গন্যমান্য ব্যবসায়িক ব্যক্তিবর্গ এবং দোকানের জমিদারকে সামনে রেখে উক্ত মালামাল সমিতির হোফাজতে এনে রাখা হয়।’’

অথচ জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক পত্রিকার অনলাইন নিউজে উক্ত সংবাদের প্রতিবেদক ও সম্পাদক মহোদয় শুধু আমাকে (মো: মহিউদ্দিন পেয়ারু) কে উদ্দেশ্য ও দোষী করে সংবাদ পরিবেশন/ ছাপানো হয়েছে। আমি আদালত বসিয়ে রাঙামাটিতে ফার্নিচার দোকানের নগদ অর্থসহ ১৩লক্ষ টাকার মালামাল লুট করেছি এই কথাটি মিথ্যা। এধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। দু:খের বিষয় উক্ত প্রতিবেদনটিতে আমার কোন ধরনের বক্তব্য নেওয়া হয়নি। সংবাদে আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমার কোন মন্তব্য না নিয়ে একজন সচেতন কলম সৈনিক কিভাবে এধরনের নিউজ পরিবেশন করেন তা আমার বোধগম্য নয়। অতএব, এধরনের মিথ্যে সংবাদ প্রকাশ করায় আমি সামাজিক, মানসিক ও দাপ্তরিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হয়েছি। দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠান হিসেবে পত্রিকা ও প্রতিবেদক বিষয়টি আরো গভীরভাবে অনুসন্ধান করা উচিত ছিলো বলে আমি করছি। উক্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে তীব্র-নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এখানে উল্লেখ্য যে, আমি রাঙামাটি আসবাবপত্র ব্যবসায়ী কল্যাণ বহুমুখী সমিতি লিমিটেডর দুইদুইবারের একজন নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও রাঙামাটি জেলা রেজি:কৃত অটোরিক্সা (সিএনজি) মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছি। কে বা কারা প্রতিহিংসামূলক চরিতার্থ করার জন্য আমার বিরুদ্ধে এহেন কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়েছে। আমি মনে করি, আমার সততা ও জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্তিত হয়ে একটি কুচক্রী মহল/পরাজিত শক্তি আমার বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত ষড়যন্ত্র করে আসছে এবং চেষ্টা করে যাচ্ছে। এসব ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে সকলকে সজাগ থাকার আহবান জানাচ্ছি।