লম্বা ছুটিতে প্রাণচঞ্চল বান্দরবানের পর্যটন কেন্দ্র।


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ০৮/১০/২০২২, ১১:৪৩ AM / ১৭
লম্বা ছুটিতে প্রাণচঞ্চল বান্দরবানের পর্যটন কেন্দ্র।

জয়বাংলা নিউজ ডেস্ক-

লম্বা সময়ের সরকারি বন্ধ থাকার কারনে কয়েকদিনে বান্দরবানে বেড়েছে পর্যটকের সমাগম।শহরের কোলাহল থেকে দূরে কেউ চুটছেন পাহাড় দেখতে কেউবা ঝর্ণা।
“চলো না ঘুরে আশি অজানা তে” নানা ধরনের জনপ্রিয় এসব গান বাজিয়ে পর্যটন নগরী বান্দরবানের পর্যটন স্পট গুলোতে এখন বাস,মিনি বাস,পর্যটকেরা ছুটে আসছেন ছুটির এই সময়টাতে পরিবার পরিজন নিয়ে সময় কাটাতে।

আগামীকাল  মামমা সম্প্রদায়ের
“ওয়াগ্যোয়াই পোয়ে উৎসব”প্রবারনা পূর্নিমা,এই সময়টাতে বর্নিল আয়োজনে পাহাড়ের মারমা সম্প্রদায়ের জনসাধারণ পালন করে এই উৎসব টি।আকাশে ফানুস উড়ানোর মূহুর্ত সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয়, জেলায় আগত পর্যটকদের এই উৎসবের আয়োজন গুলো বাড়তি আনন্দ দিবে।

সরজমিনে জেলার দর্শনীয় পর্যটন কেন্দ্র নীলাচলে কয়েক দিনের তুলনায় আগত পর্যটকদের সংখ্যাও বেড়েছে দ্বিগুন।জেলার হোটেল,মোটেল রিসোর্ট গুলো পর্যটকদের রুম বুকিং এ ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছে হোটেল কর্তৃপক্ষ ।

গত মাসের গেলো বিশ্ব পর্যটন দিবস,পর্যটন দিবসে ছিলো আবাসিক হোটেল,মোটেল গুলোতে বাড়তি ছাড়ের ব্যাবস্থা। এখনো জেলায় আগত পর্যটকদের জন্য কোন কোন আবাসিক হোটেল এই ছাড়ের ব্যাবস্থা বহাল রেখেছেন।
তাই তিন দিনের সরকারি ছুটিত দেশের বিভিন্ন জেলার দুরদুরান্ত হতে বিপুল সংখ্যক পর্যটকের সমাগম হয়েছে পাহাড় কন্যা বান্দরবানের পর্যটন কেন্দ্র গুলোতে।

চোখ জুড়ানো সবুজে ঘেরা পাহাড়ের  প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, আঁকা-বাঁকা পাহাড়ি পথ এবং এগারোটি নৃগোষ্ঠীর বৈচিত্র্যপূর্ণ জীবনের সমাহার রয়েছে পার্বত্য বান্দরবানে।

পর্যটকদের ভ্রমনের তালিকায় প্রথম পছন্দের তালিকায় স্থান পাচ্ছে মেঘলা,নীল আচল,নীল গিরি,শৈল প্রপাত,চিম্বুক,নীল দিগন্ত পর্যটন স্পট সহ জেলার বাইরে নাফা কুম,দেবতা কুম,ডিম পাহাড় সহ আরো অনেক পর্যটন স্পট গুলো।

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রকৃতি প্রেমী পর্যটকেরা ছুটে আসছে সবুজ পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে মেঘের মিতালি উপভোগ করার জন্য।পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ  পাহাড়-পর্বত ছাড়াও অসংখ্য ঝিরি-ঝর্ণা, স্বচ্ছ জলধারা।

জেলায় পর্যটকদের আনাগোনা বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক রাখতে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়ানোর জন্য জেলা টুরিস্ট পুলিশের পক্ষ হতে নেয়া হয়েছে বাড়তি সতর্কতা মূলক ব্যাবস্থা।

এ ব্যাপারে জেলা টুরিস্ট পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানান পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমনে সার্বিক সহযোগিতায় কাজ করছে জেলা টুরিস্ট পুলিশ এ জন্য বিভিন্ন পর্যটন স্পট সমূহে আমাদের টিম কাজ করছে এবং আমাদের সহযোগিতায় জেলা পুলিশের টিম ও আছে।
এ ব্যাপারে বান্দরবান হোটেল,মোটেল,রিসোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন বিগত কয়েকদিনের সরকারি বন্ধ থাকায় জেলার আবাসিক হোটেল,মোটেল,রিসোর্টে এখন পর্যটকদের পদচারণায় কানায় কানায় পূর্ণ।
তিনি আরো বলেন জেলার তিন তারকা ও দুই তারকা হোটেল গুলো পর্যটকদের আবাসনে বিভিন্নভাবে সুবিধা দিচ্ছে,তাছাড়া পর্যটকদের বাজেটের উপর নির্ভর করে আছে স্বল্প ভাড়ার আবাসিক হোটেলের ব্যাবস্থাও।
বিপুল সংখ্যক পর্যটকদের আবাসনের ব্যাবস্থায় জেলার কোন আবাসিক হোটেল,মোটেল,রিসোর্টে বাড়তি ভাড়া গ্রহনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন স্বাভাবিক ভাবে নিয়মিত ভাড়াই গ্রহন করবেন হোটেল,মোটেল,রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ।

প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য্যের মোহে দেশের বিভিন্ন জেলার দুরদুরান্ত থেকে পর্যটকদের আগমনে প্রাণচঞ্চল হয়ে উঠেছে পর্যটন কেন্দ্র গুলো।

 

 

লামা রূপসী পাড়ায় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের পথ সভা।