লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সংবাদ সম্মেল।


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ১০/১০/২০২২, ৪:০৬ PM / ১০
লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সংবাদ সম্মেল।

 

বান্দরবান জেলার লামা উপজেলার লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ব্যাক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানটি,লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ এর সরকারি ভাবে লীজ প্রাপ্ত জমিতে অবৈধ অনুপ্রবেশকারী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী কর্তৃক জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মাণ, সেড ভাঙচুর,১২ হাজারের বেশি রাবার গাছ কেটে ফেলা, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রাণনাশের হুমকি এবং মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করছে।

১০ ই অক্টোবর সোমবার সকালে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সম্মেলন কক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।সংবাদ সম্মেলনে লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেডের চেয়ারম্যান সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন ৬৪ জন শেয়ারহোল্ডার প্রত্যেকের ২৫ একর করে মোট ১৬০০ একর জমিতে লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি গড়ে উঠেছে।

২০১৩ সালের দিকে দুটি ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠী এখানে এসেছিল আমরা কোন বাধা দেইনি কারন চিন্তা করছি তারা আমাদের ভাই আমাদের রাবার কোম্পানিতে তারা চাকরি করে নিজেদের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অবদান রাখবে লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড।আস্তে আস্তে ২০১৬ থেকে আজ পর্যন্ত ৩৬ টি পরিবার লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড এর সরকারি লীজ প্রাপ্ত জায়গায় বসতি করে।কিন্তু দুঃখের বিষয় এই যে রংধজন এিপুরা কে সামনে রেখে তৃতীয় কোনো মাধ্যমের প্ররোচনায় লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড এর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তারা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন এবং সংবাদ সম্মেলন করে,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বানোয়াট মিথ্যা ভিত্তিহীন তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপনের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের দৃষ্টি কে ভিন্ন দিকে ফিরিয়ে দেয়ার চেস্টা করছে, আমাদেরকে সামাজিক ভাবে হয়রানি করছে।সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান ইতিমধ্যে এই সমস্যা নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে দুই দফা সমঝোতা মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।সর্বশেষ পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর নির্দেশে স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক লুৎফর রহমান কে আহ্বায়ক,এবং লামা উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা কে সদস্য সচিব করে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

তদন্ত টিমের রিপোর্ট আমাদের পক্ষে গেলেও তারা ষড়যন্ত্র করে তৃতীয় কোনো শক্তির উৎসাহে ৬টি এন.জি.ও,লাংকম মুরং আমরা সহ ১৩ টি এনজিও সংস্থার বিরুদ্ধে গত জুন মাসে হাইকোর্টে একটি মামলা করলো।মামলায় উল্লিখিত বিষয়বস্তুু অসামঞ্জস্য থাকায় হাইকোর্টের মহামান্য বিচারপতি মামলাটি তাৎক্ষণিক খারিজ করে দেন।

বাংলাদেশের রাবার শীল্পের অগ্রগতি বজায় রাখার স্বার্থে সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে তৃতীয় কোন শক্তির ইন্দনে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর এই জনসাধারণ কে ব্যাবহার করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে সেই সত্যি বিষয়টি তুলে ধরার অনুরোধ জানান লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড এর চেয়ারম্যান সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক,পরিচালক বৃন্দ ও প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীগণ সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।

 

 

ধর্ম যার যার উৎসব সবার- লেঃ কর্নেল মোঃ সাব্বির হাসান( পিএসসি)।