কাপ্তাই লেকে মাছ ধরা, বাজার জাত সরকারি ভাবে তিন মাসের জন্য  নিষিদ্ধ


জয় বাংলা নিউজ প্রকাশের সময় : ১৯/০৪/২০২৩, ১০:৩৫ PM / ১৪৪
কাপ্তাই লেকে মাছ ধরা, বাজার জাত সরকারি ভাবে তিন মাসের জন্য  নিষিদ্ধ

চিরন বিকাশ দেওয়ান,রাঙামাটি প্রতিনিধি।

আজ মধ্য রাত ২০/৪/২০২৩ ইং থেকে আগামী ১৯ জুলাই পর্যন্ত তিন মাস রাঙামাটি কাপ্তাই হ্রদে মাছ ধরা বন্ধ করেছে প্রশাসন,দর্ক্ষিন পূর্ব এশিয়ার বৃহৎ কৃত্রিম জলধারে কার্পোজাতীয় মাছের বংশবিস্তার ও প্রাকৃতিক প্রজ্জনন নিশ্চিত করন অন্যান্য বসরের মত এই বৎসর ও প্রশাসন তিন মাসের জন্য সবধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষনা করলো।

একই ভাবে বাজার জাত করন,পরিবহন ও নিষিদ্ধ থাকবে,মৎস্য উন্নয়ন কপোরেশন বি এফ ডি সি সুত্রে জানানো হয়েছে, নিষেধাক্ষাকালীন সময়ে স্থানীয় বরফ কল বন্ধ থাকিবে,পাশাপাশি স্থানীয় বাজার সমহ কাপ্তাই হ্রদ মনিটরিং নিয়মিত থাকবে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান,কাপ্তাই হ্রদে কার্প জাতীয় মাছের প্রাকৃতিক প্রজ্জনন সুষম বংশ বৃদ্ধির লক্ষে তিন মাস মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।

এই সময়ে মোবাইল কোর্ড পরিচালনার পাশাপাশি কাপ্তাই হ্রদে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে নৌ পুলিশ মোতায়েন করা হবে,হ্রদে অবৈধ উপায়ে মাছ শিকারের সাথে জরিতদের বিরুদ্বে আইননুগত ব্যবস্তা নেওয়া হবে, কাপ্তাই হ্রদে মৎস্য উন্নয়ন ও বিপনন কেন্দ্রের মার্কেটিং অফিসার কাজী মন্জুরুল আলম বলেন বুধবার মধ্যরাত অর্থাৎ ২০শে এপ্রিল রাত ১২টা থেকে কাপ্তাই হ্রদে সকল ধরনের মাছ আহরন ও বাজার জাত করন বন্ধ হবে।

তবে নিষেধাজ্ঞা শুরুর আগে থেকেই বি এফ ডি সির পল্টনে মাছ আসা কমতে শুরু করেছে, অন্যান্য বসরের মতো, এবার আমাদের নিজস্ব টহল কার্যক্রম চলমান থাকবে,এর আগে ১০ এপ্রিল রাঙামাটি জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ সংক্রান্ত এক বৈঠকে কাপ্তাই হ্রদে তিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ জারি করে প্রশাসন, এই আওতায় রাঙামাটির আট উপজেলা,খাগড়াছড়ি দুই উপজেলা নিয়ে, বিস্তৃত এ কাপ্তাই হ্রদে প্রায় সরকারী হিসাবে ২৫ হাজার নিবন্ধন কৃত জেলে জীবিকা নির্বাহ করেন।

 

 

আরো পড়ুন-

 

 

নাইক্ষ্যংছড়ি উপবন পর্যটন লেকে সংযোজন ৩টি কায়াকিং বোট।